Header Ads

গ্রেটার কোচবিহার পিপলস অ্যাসোসিয়েশনের আন্দোলন সরাতে লাঠি চার্জ, টিয়ারগ্যাস





পৃথক রাজ্যের দাবিকে সামনে রেখে আজ ভারত ভুক্তি চুক্তি দিবসের দিন পদযাত্রার ডাক দিয়েছিল গ্রেটার কোচবিহার পিপলস অ্যাসোসিয়েশন। জানাগেছে, আজ সকালে কোচবিহারের গোসানিমারি রাজপাট এলাকায় থেকে পদযাত্রা করে কোচবিহার জেলা শাসক  দপ্তরে গিয়ে ডেপুটেশন দেওয়ার কথা ছিল।

কিন্তু  মিছিল শুরু অনুমতি না থাকায়  তা আটকে দেয় পুলিশ। এরপর রাস্তাতেই বসে পড়েন সংগঠনের নেতাকর্মীরা। এরপর  সেখানেই বিক্ষোভ দেখাতে  থাকেন কর্মীরা । উল্লেখ্য, গত জানুয়ারী মাসেও ফের একবার পৃথক রাজ্যের জন্য আন্দোলন জোরালো হয়ে উঠেছিল। গ্রেটার কোচবিহার পিপলস পার্টির কর্মীরা রেল রোকো আন্দোলনে সামিল হয়েছিল।এর জেরে প্রায় তিনদিন বন্ধ থাকে রেলচলাচল।বিভিন্ন স্টেশনে আটকে থাকে ট্রেন। হয়রানির শিকার হতে হয় যাত্রীদের।

আন্দোলনকারীদের হঠাতে চারদিনের মাথায় পুলিশ বাধ্য হয়ে লাঠিচার্জ করে এবং কাঁদানেগ্যাস এর সেল ফাটায়। এরপর ধীরে ধীরে উঠে যায়  অবরোধ। এরপর ধীরে ধিরে শুরু হয় ট্রেন চলাচল।  তারপরই স্তব্ধ ছিল গ্রেটার কোচবিহার পিপলস পার্টির পৃথক রাজ্যের এই আন্দোলন। কয়েক মাস পরে ফের শুরু হল এই আন্দোলন।

এ প্রসঙ্গে জিসিপিএ নেতা বংশীবদন বর্মণ বলেন “আমরা গণতান্ত্রিকভাবে পদযাত্রার ডাক দিয়েছিলাম। পুলিশ আমাদের পদযাত্রা আটকে দিয়েছে। তাই আমরা রাস্তায় বসে বিক্ষোভ দেখাচ্ছি।আমাদের একটাই দাবি কোচবিহারকে পৃথক রাজ্য ঘোষণা করা হোক।

No comments