Header Ads

A young man committed suicide during a video chat with his girlfriend


 


In the fear of separation, a young man committed suicide by hanging himself during a video chat with a girlfriend. Name of the deceased youth Sujoy Mandal Police arrested Megha Mallik, the lover of the deceased. The incident is in Banipura Madhyahari of Habara in North 24 Parganas.Sujoy Mandal falls in class Twelve. Megha Mallick falls in the same class. It is known that two years ago, coaching classes were introduced in two classes. From there, there is a love relationship. However, there is a relationship with another son who is now married to Sujoy, Meghaar.There was unrest among the two for a week. Sujoy was trying to convince Megha to break the relationship. But Megha still posting a picture of a new boyfriend, without listening to Sujoy, in the social media post.The dispute between the two began to rise in the afternoon yesterday. Sujoy, trying to convince Megha to video chat with her. She said, "If you move away from my life, then I will not keep this life." The complaint, at that time, was called to go out of Sujoy's life forever, and after that, Sujoy, after committing suicide in the video call, started suicide.On Monday night, on the night of Sujay's death, Megha filed a complaint with Habara Police Station and the grandfather of the deceased Biswajit Mondol. Habba Police Station arrested Megha at night. Interrogate him. Two mobile phones are seized. Finally, in the morning arrested Megha. Today, he was taken to Barasat court. On the other hand, Sujay's body was sent to Barasat Hospital for autopsy.

বিচ্ছেদের আশঙ্কায় প্রেমিকার সঙ্গে ভিডিও চ্যাট চলাকালীন গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করলেন এক যুবক। মৃত যুবকের নাম সুজয় মণ্ডল। এই ঘটনায় মৃতের প্রেমিকা মেঘা মল্লিককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ঘটনাটি উত্তর ২৪ পরগনার হাবড়ার বাণীপুর মধ্যহাড়িয়ার।

সুজয় মণ্ডল ক্লাস টুয়েলভে পড়ত। একই ক্লাসে পড়ে মেঘা মল্লিক। জানা গেছে, বছর দেড়েক আগে কোচিং ক্লাসে দু’জনের পরিচয়। সেখান থেকে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। কিন্তু ইদানিং সুজয়কে এড়িয়ে অন্য একটি ছেলের সঙ্গে সম্পর্ক তৈরি হয় মেঘার।
এই নিয়ে এক সপ্তাহ ধরে দু’জনের মধ্যে অশান্তি চলছিল। সুজয় মেঘাকে সম্পর্ক না ভাঙার জন্য বোঝানোর চেষ্টা করছিল। কিন্তু মেঘা এরপরও সুজয়ের কথা না শুনে নতুন প্রেমিকের সঙ্গে তোলা ছবি সোশাল মিডিয়াতে পোস্ট করে।
এই নিয়ে দু’জনের বিবাদ চরমে ওঠে গতকাল বিকেলে। অভিযোগ, মেঘার সঙ্গে ভিডিও চ্যাট করে বোঝানোর চেষ্টা করছিল সুজয়। প্রেমিকা সে বলে, "তুমি যদি আমার জীবন থেকে সরে যাও তাহলে এ জীবন আর রাখব না আমি। অভিযোগ, সেইসময় সুজয়কে নিজের জীবন থেকে চিরতরে সরে যেতে বলে মেঘা। তারপরই, ভিডিও কল চালু অবস্থায় নিজের গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে সুজয়।

গতকাল রাতে সুজয়ের মৃত্যুর জন্য মেঘাকে দায়ি করে হাবড়া থানায় অভিযোগ দায়ের করে মৃতের দাদা বিশ্বজিৎ মণ্ডল। রাতেই মেঘাকে আটক করে হাবড়া থানার পুলিশ। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে। বাজেয়াপ্ত করা হয় দুটি মোবাইল। অবশেষে আজ সকালে মেঘাকে গ্রেপ্তার করে। আজ তাকে বারাসত আদালতে তোলা হয়। অন্যদিকে, সুজয়ের মৃতদেহ বারাসত হাসপাতালে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। 


No comments