Header Ads

পড়াশুনা করতে না দেওয়ায় বাড়ি থেকে পালিয়ে অাত্মহত্যার চেষ্টা শবর কিশোরীর





পড়াশুনা করতে না দেওয়ায় বাড়ি থেকে পালিয়ে অাত্মহত্যার চেষ্টা শবর কিশোরীর।

ঘটনাটি বেলপাহাড়ী থানা এলাকার। বেলপাহাড়ী থানা এলাকার বাসীন্দা ক্লাস ৭ এর ছাত্রী পূর্নিমা মুড়া বেলপাহাড়ী গার্লস হাইস্কুলের ছাত্রী। বাড়ি কাঁকড়ি ঝর্না এলাকায়। বাড়িতে বাবা,মা অার ভাই থাকে। ক্লাস ৬ এ পড়ে ভাই। বাবা, মা দুজনেই প্রচুর মদ খান। তারা চাননা মেয়ে পড়াশুনা করুক। তার বদলে মেয়ে কাজ করে পয়সা রোজগার করবে।

তাই পড়াশুনা করতে না দিয়ে মারধোর করে বাবা মা।  বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেওয়ায় হয় শবর কিশোরিকে। এর পর বাড়ি থেকে বেরিয়ে ভাইয়ের সাইকেলে চেপে বাসস্ট্যান্ডে অাসে। বন্ধুর কাছে ৭টাকা ধার করে বাসে চেপে ঝাড়গ্রামে পালিয়ে অাসে। সারাদিন কাজ খোঁজে না পেয়ে স্টেশনে গিয়ে অাত্মহত্যার চেষ্টা করে।   সেই সময় ই ঝাড়গ্রাম স্টেশনে ট্রেন ধরতে গিয়ে এই কিশোরী নজরে অাসে এক ICDS কর্মীর। নাম দিপালী মাইতি। তিনি বাচ্চা টি কে উদ্ধার করে সুস্থ কেরে সুচেতনা মহিলা সংস্থার হাতে তুলে দেন। সুচেতনার সম্পাদিকা স্বাতী দত্ত কিশোরী  কে ঝাড়গ্রাম থানার সহযোগিতায় মেদিনীপুর বিদ্যাসাগর হোমে পাঠানোর ব্যাবস্থা করেন। তিনি জানান কিশোরী র পড়াশুনা ও কারিগরি শিক্ষ্যা সব কিছুর ই ব্যাবস্থা করা হবে ওখানে। নতুন জীবনে খুশি পূর্নিমা মুড়া। তবে ভাইএর জন্য মন খাড়াপ তার। স্বাতী দেবী জানান ভাই টিকে ও উদ্ধার র ব্যাবস্থা করা হবে। অাপাতত সুচেতনা হোমে রাখা হয়েছে উদ্ধার করে। পড়াশুনার  ব্যাবস্থা করা হচ্ছে।

No comments