Header Ads

ঝাঁশি বাহিনীর কাছে অবশেষে হার মানতে হল প্রশাসনকে



গ্রামের ঝাঁশি বাহিনীর কাছে অবশেষে হার মানতে হল প্রশাসন কে। গ্রামের মাঝে মদ দোকান করা চলবেনা এই দাবিতে ঝাড়গ্রামের শালবনি গ্রামপঞ্চায়েত অফিসে ৩ ঘন্টা তালা লাগিয়ে বিক্ষ্যোভ দেখালেন গ্রামের মহিলারা। অবশেষে বিকেল ৫ টা নাগাদ পুলিশ গিয়ে অবরোধ মুক্ত করেন পঞ্চায়েত কর্মীদের। যদিও তার অাগে কথাদিতে হয় ঐখানে অার মদ দোকান হবেনা। তার পরেই অান্দোলন ছেড়ে সংসারের দিকে পা বাড়ান সোলগেড়িয়া, চন্ডিপুর গ্রামের মা, মাসিমা, দিদি, বোন রা।
হাই ওয়ের ধারে মদ দোকান বন্ধ। তাই  হাইওয়ে থেকে কিছুটা গ্রামের রাস্তায় নতুন করে মদ দোকান তৈরীর কাজ শুরু করেছিলেন এক মদ ব্যাবসায়ী। এলাকার মানুষ এরি প্রতিবাদে একাধিক বার প্রতিবাদ জানায়। পঞ্চায়াতের কাছে অভিযোগ ও জানায় গ্রামের মহিলারা। তদের বক্তব্য  সোল গেরিয়া, চন্ডিপুর গ্রামের মাঝে ঐ দোকানের ৫০০ মিটারের মধ্যে বাচ্চাদের স্কুল। ঐ দুটি গ্রামের চলাচলের মূল রাস্তাও ওটা। মদদোকান হলে এলাকার পরিবেশ নষ্ট হবে। বারবার বলা সত্ত্বেও ঐ ব্যাবসায়ী কোনো কথা গ্রাহ্য না করে মদ দোকান প্রায় সর্ম্পূন্য করে ফেলে। এরি প্রতিবাদে গর্জে ওঠে এলাকার মহিলা রা। টাকা খেয়ে পঞ্চায়েত ও প্রশাসন চুপ হয়ে গেছে এই প্রতিবাদে নির্মিয়মান মদ দোকান ভেঙে মিছিল করে পঞ্চায়েত অাফিস ঘেরাও করে।

No comments